কালোবাজারি রুখতে মুখ্যমন্ত্রীর কাছে বড়বাজার জুড়ে তল্লাশির আবেদন বাংলা পক্ষর - Banglar Chokh | True News for All

Breaking

Home Top Ad

Post Top Ad

Saturday, March 28, 2020

কালোবাজারি রুখতে মুখ্যমন্ত্রীর কাছে বড়বাজার জুড়ে তল্লাশির আবেদন বাংলা পক্ষর

করোনা ভাইরাসের প্রকোপ বাড়ছে, বাড়ছে কালোবাজারি। কালোবাজারি রুখতে নজিরবিহীন প্রচার বাংলা পক্ষর৷ কালোবাজারি রুখতে বড়বাজারের সব মালিকের বাড়ি-গোডাউন-ফ্ল্যাট-বাগানবাড়িতে তল্লাজির আবেদন জানিয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে খোলা চিঠি দিল বাংলা পক্ষ। বাঙালি জাতীয়তাবাদী এই সংগঠনের অভিযোগ বড়বাজারের নেতৃত্বে রাজ্য জুড়ে চাল, ডাল, ওষুধ সহ নানা জরুরী জিনিসের কালোবাজারি করছে অসাধু ব্যবসায়ীরা, মূলত মাড়োয়াড়ি ও গুজরাটিরা। আজই ৩৪৩ বস্তা চাল কালোবাজারির অভিযোগে কাশীপুর থেকে সন্তোষ অগরওয়াল সহ দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে কলকাতা পুলিস। বাংলা পক্ষর দাবি, আমরা আর একটা ১৯৪৩ ফিরিয়ে আনতে দেব না৷ বাঙালিকে কালোবাজারি করে না খাইয়ে মারা যাবে না।
    (বড়বাজারের ছবি, ইন্টারনেট থেকে নেওয়া)
মুখ্যমন্ত্রীকে লেখা খোলা চিঠির বয়ানঃ

মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী,
করোনা নামক মারণ ভাইরাসের করাল গ্রাস যখন গোটা রাজ্য তথা ভারত ভুগছে, আপনি সামনে দাঁড়িয়ে থেকে পাল্টা লড়াইয়ে নেতৃত্ব দিচ্ছেন। আপনাকে বাঙালি জাতির পক্ষ থেকে কুর্ণিশ জানাই৷

মহাশয়া, এই বিপদের সময়ে কালোবাজারি করছে অনেক অসাধু ব্যবসায়ী৷ বাঙালির রক্ত খেয়ে তারা মুনাফা করতে চায়। ফিরিয়ে আনতে চায় ১৯৪৩, সেদিন তারা চালের কালোবাজারি করে ৫০ লাখ বাঙালিকে না খাইয়ে মেরেছিল। আমরা সেই দিন ফিরিয়ে আনতে দিতে পারি না৷ বড়বাজারের বিরুদ্ধে কালোবাজারির ভয়ংকর অভিযোগ উঠেছে গত কদিনে। কিছু ক্ষেত্রে পুলিস অবশ্যই সদর্থক ভূমিকা পালন করেছে৷ মেহেতা বিল্ডিং এ রেইড করে ওষুধের কালোবাজারি করা কয়েকজনকে গ্রেপ্তার করেছে আপনার পুলিস৷ আজ কাশীপুর থেকে ৩৪৩ বস্তা চাল কালোবাজারি করায় সন্তোষ অগরওয়াল কে গ্রেপ্তার করেছে কলকাতা পুলিস। রাজ্য জুড়ে বড়বাজারের নেতৃত্বে কালোবাজারির অভিযোগ উঠছে বারবার। খবর পাওয়া যাচ্ছে, এখান থেকে হ্যান্ড গ্লাভস, মাস্ক, হ্যান্ড স্যানিটাইজারের মতো অত্যন্ত জরুরী সামগ্রী অন্য রাজ্যে চালান করা হচ্ছে বেশি মুনাফার লোভে, কারণ বিহার-ঝাড়খন্ড-ইউপিতে এসবের জোগান কম। হাহাকার দেখা দিতে পারে বাংলা জুড়ে৷ বিপদে পড়বে আশাকর্মী, স্বাস্থ্যকর্মী, নার্স, চিকিৎসক সহ বাংলার সকল মানুষ। এছাড়া চাল-ডাল ও অন্যান্য নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসের অস্বাভাবিক মজুতদারি ও কালোবাজারি তো রয়েছেই। আপনার উপর বাঙালি জাতির ভরসা আছে।

বাংলা ও বাঙালির স্বার্থে, এই বিপদের দিনে বাংলাকে সুরক্ষিত রাখতে আপনি বড়বাজার সহ সকল বড় গদির মালিকদের দোকান, গোডাউন ও বাগানবাড়ি সহ সব জায়গায় রেইড করান পুলিস ও এনফোর্সমেন্ট ব্রাঞ্চকে কাজে লাগিয়ে। কালোবাজারি ধরা পড়লে দ্রুত তাদের লাইসেন্স বাতিল করুন৷ আপনি এই পদক্ষেপ নিলে বাঙালি আপনাকে দুহাত তুলে আশীর্বাদ করবে।

এই বিপদের সময়ে আপনার এই লড়াইয়ের জন্য আপনাকে আবারও ধন্যবাদ।

ধন্যবাদান্তে,
বাংলা পক্ষ

No comments:

Post a Comment

Post Bottom Ad