বাঙালিকে 'বাংলাদেশী' বলার প্রতিবাদে শিলিগুড়ি ও কলকাতায় রাস্তায় বাংলা পক্ষ - Banglar Chokh | True News for All

Breaking

Home Top Ad

Post Top Ad

Saturday, January 25, 2020

বাঙালিকে 'বাংলাদেশী' বলার প্রতিবাদে শিলিগুড়ি ও কলকাতায় রাস্তায় বাংলা পক্ষ

ইদানীং কালে ভারতে বাংলা ভাষায় কথা বললেই 'বাংলাদেশী' দাগিয়ে দেওয়া হচ্ছে। 'বাংলাদেশী' সন্দেহে বাঙালিকে নানা রাজ্যে হেনস্থা করা হচ্ছে, বাঙালি বস্তি উচ্ছেদও চলছে নানা রাজ্যে, সমস্যা বেশি বিজেপি শাসিত রাজ্যগুলোয়। এমনকি, চিঁড়ে খাওয়ায় বাংলাদেশী সন্দেহে রাজমিস্ত্রীর কাজ থেকে বাঙালিকে বের করে দিয়েছে বিজেপির বাংলার দায়িত্বে থাকা কৈলাশ বিজয়বর্গী। পথে ঘাটে বাঙালিকে বাংলাদেশী বলার চল শুরু হয়েছে হিন্দিভাষীদের মধ্যে।

শুক্রবার বেলা এগারোটা নাগাদ খোদ কলকাতায় পাটুলিতে অতিরিক্ত ভাড়া নিয়ে বচসার জেরে বাঙালিকে 'বাংলাদেশী', 'উদ্বাস্তু' বলে অপমান করল বিহারী ট্যাক্সিচালক। সহেলী চক্রবর্তী ও অভিজিৎ কুন্ডু নামের দুই বাঙালিকে 'বাংলাদেশী' বলে অপমান করা হয়। ঘটনাক্রমে দুজনই বাঙালি জাতীয়তাবাদী সংগঠন বাংলা পক্ষর সদস্য। গতকাল ঘটনার পরই প্রতিবাদে মুখর হয় বাংলা পক্ষ। আজ রাস্তায় নামল বাংলা পক্ষ। প্রথমে পাটুলি ট্যাক্সি স্ট্যান্ডে, তারপর অভিযুক্তর বাড়ির সামনে বিক্ষোভ দেখানো হয়। তারপর অভিযুক্ত ট্যাক্সি ড্রাইভারের নামে পাটুলি থানায় অভিযোগ জানায় সহেলী চক্রবর্তী৷


 (পাটুলিতে অভিযুক্ত ট্যাক্সিচালক)

শিলিগুড়িতে একটি মোবাইল স্টোরে বাংলায় পরিষেবা চাইলে বাঙালিকে যুবককে বাংলাদেশে চলে যাওয়ার জন্য বলে বিহারী কর্মী। প্রতিবাদে সেই মোবাইল স্টোরে যায় শিলিগুড়ি বাংলা পক্ষর সদস্যরা, বিক্ষোভ দেখা হয়। বাধ্য হয়ে কান ধরে ক্ষমা চায় ওই অভিযুক্ত।
(বিক্ষোভের মুখে ক্ষমা চাইছে অভিযুক্ত যুবক)

কৈলাশ বিজয়বর্গী বলেছেন, চিঁড়ে খাওয়া দেখে বাংলাদেশী চেনা যায়। এর প্রতিবাদে চিঁড়ে খেয়ে প্রতিবাদ জানাল বাংলা পক্ষ এবং আপামর বাঙালি।
(বাংলা পক্ষর চিঁড়ে খাওয়ানো কর্মসূচী)

বাংলা পক্ষর স্লোগান ছিল 'বাঙালি চিঁড়ে খায়, বাঙালির শত্রুরা বাংলায় এলে চিড়ে দেবো।'

এভাবে খোদ কলকাতা সহ বাংলা তথা ভারতে বাঙালিকে 'বাংলাদেশী' সন্দেহে হেনস্থা করায় ক্ষোভ বাড়ছে বাঙালি মনে।

-নিজস্ব সংবাদদাতা, বাংলার চোখ

No comments:

Post a Comment

Post Bottom Ad