"মান্না দে কৌন হ্যায়? ইস রুমমে বাংলা নেহি চলেগা"-কলকাতা কফিহাউসে বাঙালিকে অপমান বিহারীদের - Banglar Chokh | True News for All

Breaking

Home Top Ad

Post Top Ad

Friday, October 25, 2019

"মান্না দে কৌন হ্যায়? ইস রুমমে বাংলা নেহি চলেগা"-কলকাতা কফিহাউসে বাঙালিকে অপমান বিহারীদের

‘কলকাতা কফি হাউসে বাংলায় কথা বলা যাবে না। কথা বলতে হবে হিন্দিতে!’ কলেজ স্ট্রিট কফি হাউসের এক বিহারী কর্মী এমন নিদান দিয়েছেন বলে ইন্দ্রাণী চক্রবর্তীর করা সোশ্যাল মিডিয়ার পোস্টে শোরগোল শুরু হয়েছে। বুধবার বিকেলে তাঁরা তিন বন্ধু কফি হাউসে গিয়েছিলেন। মোবাইল ফোনে চার্জ দেওয়া নিয়ে কফি হাউসের এক কর্মীর সঙ্গে তাঁদের বিবাদের শুরু। ইন্দ্রাণী বলেন, "তাকে বলা হয়, মালিকের সঙ্গে কথা বলুন। অথচ আমরা জানি, কফি হাউসের মালিক বলে কেউ নেই। একটি সমবায় এই কফি হাউস চালায়।’’ তরুণীর দাবি, ওই ‘মালিকের’ সঙ্গে কথা বলতে গেলেই তিনি বলে দেন, হিন্দিতে কথা বলতে হবে। 

ওই বিহারি বলেন "হামনে এক বার বোল দিয়া, নেহি হোগা। আব নিকলো রুমসে। ইয়ে তো বঙ্গালি হ্যায়। ইস রুমমে বাংলা নেহি চলেগা।’ ইন্দ্রাণী বলেন, ‘‘এর পর মান্না দে-র প্রসঙ্গ তুলে আমরা বলি, তাঁর গান শুনেই নতুন প্রজন্ম কফি হাউস চিনেছে। তিনিও তো বাঙালিই! ওই মালিক বলেন, মান্না দে কৌন হ্যায়? যে লোকটা আমাদের ওই মালিকের ঘরে নিয়ে গিয়েছিলেন তিনি উত্তরে বলেন, জানি না। অত বকব না। এখানে বাংলা বলা যাবে না, বেরিয়ে বাংলা বলুন।’’

বাংলাপক্ষ এই ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ করেছে । বাংলাপক্ষের তরফে দীপাঞ্জন অনন্যা বসু বলেন, ‘‘কফি হাউস বাঙালির চেতনায় একটা বিশেষ জায়গা নিয়ে রয়েছে। সেখানে বাংলায় কথা বলতে কেউ নিষেধ করছেন, এটা ভাবাই যায় না!’’ যদিও কফি হাউস পরিচালন সমিতির সম্পাদক তপন পাহাড়ি বলেছেন ওই তরুণীর বিরুদ্ধে আমরা আমহার্স্ট স্ট্রিট থানায় অভিযোগ করেছি।

No comments:

Post a Comment

Post Bottom Ad