এয়ার স্ট্রাইকে জঙ্গিমৃত্যু হয়নি,দাবি বিশ্বের একাধিক তাবড় সংবাদপত্রের - Banglar Chokh | True News for All

Breaking

Home Top Ad

Post Top Ad

Friday, March 1, 2019

এয়ার স্ট্রাইকে জঙ্গিমৃত্যু হয়নি,দাবি বিশ্বের একাধিক তাবড় সংবাদপত্রের






পাকিস্তানের বালাকোটে মঙ্গলবারের বিমান অভিযানে জঙ্গি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র ধ্বংস হয়ে অন্তত ৩৫০ জঙ্গি নিহত হওয়ার দাবি কার্যত  স্বীকার করছে না যুদ্ধের খবরে অত্যন্ত পারদর্শী, নিরপেক্ষতার জন্য বিশ্বখ্যাত আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলি।

ভারত দাবি করে ভারত পাকিস্তানে থাকা জইস-ই-মহম্মদের জঙ্গি ঘাঁটি ধ্বংস করে দিয়েছে। ভারতীয় মিডিয়া দাবি করে, প্রায় ৩০০ জন জঙ্গি নিহত হয়েছে।
এই দাবিকে নস্যাৎ করে দেয় রয়টার্স, আল জাজিরা, বিবিসি, র মতোইউরোপ, আমেরিকা এবং পশ্চিম এশিয়ার প্রথমসারির  আন্তর্জাতিক সংবাদ সংস্থা। এখানে কয়েকটি নমুনা দেওয়া হল।

 নিউ ইয়র্ক টাইমস: সামরিক পর্যবেক্ষক এবং দু'জন পশ্চিমী নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞের মতে, বালাকোটে যেখানে ভারতীয় বিমান বোমা ফেলেছে, সেখানে সত্যিই জঙ্গি ঘাঁটি ছিল। কিন্তু ২০০৫-এ ভয়ঙ্কর ভূমিকম্পের পরে বিদেশি ত্রাণ সংস্থাগুলি ওই অঞ্চলে যাতায়াত শুরু করে। ধরা পড়ে যাওয়ার ভয়েই
জঙ্গিরা বালাকোটের এই এলাকা ছেড়ে অন্য কোথাও সরে যায়। সুতরাং ভারতীয় বোমায় ক্ষয়ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা বেশ কম বলে তাদের ধারণা।

সংবাদ সংস্থা রয়টার্স : ‘ভারতীয় বিমান বোমা ফেলার পরে সে দেশে উৎসব পালন করা হচ্ছে। কিন্তু এই হামলায় বিশেষ ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে
মনে হয় না। কারণ স্থানীয় গ্রামবাসীরা এই আমাদের এবং অন্য স্থানীয় সংবাদমাধ্যমগুলিকে জানিয়েছেন, রাতে চার-পাঁচটি বোমা বিস্ফোরণের শব্দ তাঁরা
শুনেছেন। তাতে কয়েকটি বাড়িতে ফাটল ধরেছে। এক জন সামান্য জখমও হয়েছেন। কিন্তু ফাঁকা মাঠে বোমাগুলি পড়ায় বড় কোনও ক্ষয়ক্ষতি হয়নি।’

দ্য গার্ডিয়ান: ভারত জুড়ে উৎসব চলছে। কিন্তু ফাইটার জেটের হানায় আদৌ গুরুত্বপূর্ণ কোনও ফল হয়েছে, না কি ১৪ ফেব্রুয়ারির আত্মঘাতী হামলার
(পুলওয়ামায়) পর আমজনতার মধ্যে তৈরি হওয়া ক্ষোধ প্রশমনের উদ্দেশ্যই এই পদক্ষেপ, তা স্পষ্ট নয়। স্থানীয় বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলে রয়টার্স
 এবং পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, গভীর রাতে চার-পাঁচটি বিস্ফোরণ হয়। তাতে কয়েকটি বাড়ি ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ার পাশাপাশি মাটিতে গর্ত হয়ে
গিয়েছে।

ওয়াশিংটন পোস্ট: এলাকার মানুষ এবং স্থানীয় থানার পুলিশকর্মীরা আত্মপরিচয় গোপন রেখে জানিয়েছেন, বালাকোট শহরের কয়েক কিলোমিটার
দূরে পাহাড়ি এলাকায় বিমান থেকে বোমা ফেলা হয়েছে। কিন্তু সেখানে বড় কোনও প্রাণহানির ঘটনা ঘটেনি।

গাল্ফ নিউজ : মাদ্রাসার থেকে এক কিলোমিটার দূরে পড়ে বোমা। তবে লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে পারেনি তারা। ফিদা হুসেইন শাহ নামে
এক কৃষিজীবী বলেন ভারতের থেকে ছুটে সামরিক অস্ত্রের কিছু অংশ পাইন গাছে আটকে গিয়েছিল। বাড়িতে এক ব্যক্তি ঘুমাচ্ছিলেন। সেই সময় তাঁর জানলার কাচ ভেঙে যায়।’
অস্ট্রেলিয়ার এক সংস্থা স্যাটেলাইট ইমেজ প্রসেস করে দেখিয়েছে ভারতীয় বায়ু সেনার বম্বিং এ কিছু ক্ষতি হয়নি জঙ্গি ঘাঁটিতে।

No comments:

Post a Comment

Post Bottom Ad