"বাংলার চোখ" গরমাগরম - প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর বাঙালী প্রেমিক - Banglar Chokh | True News for All

Breaking

Home Top Ad

Post Top Ad

Sunday, January 27, 2019

"বাংলার চোখ" গরমাগরম - প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর বাঙালী প্রেমিক

প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর গ্ল্যামার নিয়ে এককালে নানা রকম কথাবার্তা চালু ছিল নানা মহলে, কথা হত তার ফ্যাশনের কথা। তার থেকে বেঁটে ও নানা বিবাদের কেন্দ্রে থাকা রবার্ট ভদ্রকে বিয়ে করে মিসেস ভদ্র হয়ে যাবার পরে, তার গ্ল্যামার নিয়ে আলোচনা অনেকটাই কমে যায়। তাই যখন সম্প্রতি তাকে উত্তর প্রদেশের পূর্বাঞ্চলের দায়িত্ব দিলেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী, তার গ্ল্যামার নিয়ে আলোচনা শুরু হয়ে গেছে হিন্দি ও ইংরেজি মিডিয়ায়। যুবকদের মধ্যে জনপ্রিয় একটি পত্রিকার এক কর্মী জানালেন যে সামনের একটি সংখ্যা প্রিয়াঙ্কার গ্ল্যামার নিয়েও তারা করতে চায় এবং সেখানে উঠে আসবে প্রিয়াঙ্কার বাঙালী প্রেমিকের কথা।  

   

যারা শুনে অবাক হচ্ছেন, তাদের জন্য বাংলার চোখ নিয়ে এসেছে বেশ কিছু চাঞ্চল্যকর তথ্য। প্রিয়াঙ্কার যখন আদৌ বিয়ে হয়নি, সেই সময়ে প্রিয়াঙ্কার প্রেমে পড়েন মেধাবী বাঙালী বিজ্ঞানী ডঃ এস এস মৈত্র। দিল্লীর একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের খ্যাতনামা গবেষক থাকা অবস্থায় গ্ল্যামার গার্ল প্রিয়াঙ্কার প্রেমে পড়েন অত্যন্ত মেধাবী ডঃ মৈত্র। তিনি প্রিয়াঙ্কাকে একাধিক প্রেমপত্র লেখেন। এক পর্যায়ে প্রিয়াঙ্কাকে প্রপোজ করে "আই লাভ ইউ" লিখে দেন। প্রিয়াঙ্কার দেহরক্ষী গ্রুপ সারাক্ষন প্রিয়াঙ্কাকে ঘিরে রাখত। কিন্তু "প্রেম মানে না কোন প্রাচীর"। তাই তিনি লাভ লেটারের পর লাভ লেটার পাঠাতে থাকেন। কিন্তু এই বাঙালী অধ্যাপকের এহেন ধৃষ্টতা সহ্য করতে না পেরে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। কেউ তার পাশে দাঁড়ায়নি। তিনি ভালোবাসেন প্রিয়াঙ্কাকে, এই ছিল তার অপরাধ। আজকে যখন প্রিয়াঙ্কা অন্যের ঘরে সংসার করছেন, সন্তানও হয়েছে, আবার আসছেন পাদপ্রদীপের আলোয়, তখন কেমন লাগে তার? জানা যায়নি।

প্রেম করে রাষ্ট্রের রোষে পড়ার ঘটনা ভারতে এটা প্রথম নয়, এটা শেষ নয়। গত বছরেই এরকম একটি ঘটনা সামনে আসে যেখানে একজন সাধারণ যুবক প্রেমে পড়েছিলেন বিজেপির এক অবিবাহিতা মহিলা সাংসদের। কিন্তু এটা জানাজানি হয়ে যাওয়াতে এই প্রেমিক যেভাবে লাঞ্ছিত হন, তা ডঃ মৈত্রর করুণ কাহিনীর কথাই মনে করিয়ে দেয়।           

No comments:

Post a Comment

Post Bottom Ad