"মমতা প্রধানমন্ত্রী হবে"- দিলীপের এ কথার নেপথ্যে আসলে দিলীপ-অমিত শাহর লড়াই - Banglar Chokh | True News for All

Breaking

Home Top Ad

Post Top Ad

Friday, January 11, 2019

"মমতা প্রধানমন্ত্রী হবে"- দিলীপের এ কথার নেপথ্যে আসলে দিলীপ-অমিত শাহর লড়াই

বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জন্মদিনে শুভেচ্ছা জানাতে গিয়ে বোমা ফাটান বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তিনি বলেন, "বাঙালির ভালোর জন্য মমতা ব্যানার্জীর সুস্থ থাকা প্রয়োজন। এবার বাঙালি প্রধানমন্ত্রী হবে, সেটা মমতা ব্যানার্জীই।" দিলীপ ঘোষের এই বক্তব্যের পরই রাজ্য তথা ভারতের রাজনীতিতে শোরগোল পড়ে যায়। বেজায় অস্বস্তিতে পড়ে বিজেপি।


কিন্তু এই বক্তব্য কাকতালীয় না। দিলীপ ঘোষের ঘনিষ্ট সূত্র মারফৎ জানা গেছে এই বক্তব্য আসলে দিলীপ ঘোষের তীব্র ক্ষোভের বিস্ফোরণ। বিজেপির পরিকল্পিত রথযাত্রা ঘিরে কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের ভূমিকায় ক্ষুব্ধ দিলীপ ঘোষ। অমিত শাহ নিজে রথযাত্রার পরামর্শ দিলেও, মাঝপথে অমিত শাহ ও মোদি সরে যান। রথযাত্রা এখন বিশ বাঁও জলে। ব্যর্থতার দায় বর্তায় রাজ্য বিজেপির উপর, এটা ক্ষোভের অন্যতম কারণ।


কিন্তু, মূল কারণ মুকুল রায়। দলে গুরুত্ব বাড়ছে মুকুল রায়ের। দিলীপ ঘোষ সহ আরএসএস নেতৃত্বের বিরোধীতা সত্ত্বেও দলে মুকুলকে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছে বিজেপি। ক্ষমতা কমেছে দিলীপ ঘোষের। মুকুলকে নিয়ে ক্ষুব্ধ বেশিরভাগ পুরানো নেতাই। বারবার জানিয়েও হয়নি, দলে জাঁকিয়ে বসছেন মুকুল। এখন দেখার দিলীপ ঘোষ নিকট ভবিষ্যতে কি করেন! সম্প্রতি মুকুল ঘনিষ্ঠ তৃণমূল সাংসদ সৌমিত্র খাঁ বিজেপিতে যোগ দেওয়ায় দলে ক্ষমতার সমীকরণে সিঁদুরে মেঘ দেখছে দিলীপ ক্যাম্প।

তৃণমূলের সাথেও দিলীপ ঘোষের ঘনিষ্ঠতার খবর পাওয়া যাচ্ছে। যদিও সব গুজব বলে উড়িয়ে দিচ্ছে বিজেপি।

No comments:

Post a Comment

Post Bottom Ad